অনলাইনে পণ্য বিক্রি শুরু করতে চান? হয়তো আপনার কোনো  মার্কেটে দোকান আছে; এবার অনলাইনে বিক্রি শুরু করতে চান? বুঝতে পারছেন না কীভাবে শুরু করবেন? কী কী জিনিসপত্র লাগবে জেনে নিতে চান? আপনার জন্যই নিচের দরকারী টিপসগুলো:

Picture1

 

  • দরকার নিজের একটি ওয়েবসাইট?
    • অনলাইনে বেচাকেনা শুরু করতে চাইলে প্রথমেই আপনার লাগবে একটি অনলাইন স্টোর। একটি অনলাইন ওয়েবসাইট যার ঠিকানা দেখেই ক্রেতা বুঝে যাবেন এই ব্র্যান্ডের পণ্যই তারা খুঁজছেন। ধরুন আপনার দোকানের নাম xyz . আপনি চাইবেন আপনার অনলাইন স্টোরের নাম হবে www.xyz.com. এখন এই নাম যদি আগে থেকেই কেউ ব্যবহার করা শুরু করে তবে আপনি এই নাম ব্যবহার করতে পারবেন না।  আপনাকে এর আশেপাসের কিছু পছন্দ করতে হবে।  এরপর আপনাকে আপনার ওয়েবসাইট ডিজাইন করতে হবে এবং সেই ওয়েবসাইট একটি সার্ভারে রাখতে হবে যাতে করে ক্রেতা আপনার সাইট ভিজিট করতে পারেন। এখন এই সমস্যা সমাধানের জন্যে উদ্যোক্তাকে যেতে হবে সফটওয়ার কোন ফার্মে নয়তো কোন ওয়েব ডেভেলাপার এর কাছে। আর প্রতিনিয়ত ওয়েবসাইট আপডেটের জন্যে বারবার ডেভেলপার এর কাছে যাওয়ার ঝামেলা তো আছেই। কেমন হয় যদি এই ধরনের একটি সাইট আপনি নিজেই বানাতে পারেন? এবং এই সাইট টি আপনি নিজেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন? ষ্টোরিয়া তে আপনি এই কাজটাই করতে পারবেন সহজে। একটি মেইল একাউন্ট দিয়েই হয়ে যেতে পারবেন এরকম একটি অনলাইন স্টোরের মালিক। কিন্তু প্রথমে আপনি পাবেন আপনার স্টোর ষ্টোরিয়ার সাবডোমেইনে। ধরুন আপনার xyz স্টোরের লিংক হবে xyz.storrea.com. আর আপনি যদি চান আপনার স্টোর হবে www.xyz.com  তবে তাও পাবেন। এবং আপনার সেই সাইটটিও নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন আমাদের অ্যাডমিন প্যানেল থেকে। বিস্তারিত জানতে পড়ুন এখানে।  icon-saas_(3)
    •  ষ্টোরিয়ার এই সার্ভিস এর পোশাকি নাম হলো SaaSSaaS সম্বন্ধে জানতে পড়তে পারেন এখানে

 

  • কিভাবে ক্রেতা আকর্ষণ করবেন?( মার্কেটিং এর খুটিনাটি )
    • স্টোর তৈরী করার পরে আপনাকে যেটা করতে হবে তা হলো কাস্টমার এর কাছে আপনার স্টোরের খবর পৌছানো। যাতে করে কাস্টমার আপনার সাইটে এসে আপনার পণ্য দেখে এবং কিনে। সোজা বাংলায় আপনাকে মার্কেটিং করতে হবে। এই মার্কেটিং দুইভাবেই হতে পারে। আপনি অনলাইনে ও প্রচারণা চালাতে পারেন আবার প্রথাগত মার্কেটিং এর সাহায্য নিয়ে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন, কিংবা লিফলেট বিতরণ করে অথবা টিভিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে আপনার পণ্যের প্রচারণা চালাতে পারেন। অনলাইন মার্কেটিং এর জন্যে সোশ্যাল মিডিয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। সাথে আছে সার্চ ইঞ্জিনে আপনার পণ্যের উপস্থিতির ব্যাপারও।
    • ফেইসবুক বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম। যেহেতু এখানে প্রচুর সংখ্যক মানুষ সময় ব্যয় করে তাই এখানে যাতে তারা আপনার পণ্যের ব্যাপারে জানতে পারে এজন্য আপনি আপনার ফেইসবুক পেইজ থেকে আপনার পেইজ অথবা পণ্যের বিস্তারিত জানিয়ে পোস্ট দিয়ে সেটাকে বুস্ট করতে পারেন টাকা দিয়ে। এতে করে ব্যবহারকারীদের নিউজ ফিডে আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন চলে যাবে। ফেইসবুকে বিজ্ঞাপনের খুঁটিনাটি পরবর্তী কোন পোস্টে আরও বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।
    • গুগলে বিজ্ঞাপন দিয়েও আপনি আপনার পণ্যের প্রচারণা চালাতে পারেন। বিভিন্ন নিউজ সাইট অথবা নিউজ পোর্টাল এ গেলে দেখতে পাবেন হরেক রকম সাইটের বিজ্ঞাপন। এই বিজ্ঞাপন গুলো আপনি দিতে পারেন গুগল এডঅয়ার্ডসে বিজ্ঞাপন দিয়ে। আর আপনার সাইটের SEO Optimization করে আপনার সাইটকে গুগল সার্চ রেজাল্টে উপরের দিকে প্রদর্শন করতে পারবেন। এই ব্যাপারগুলো আরও খুঁটিনাটি পরবর্তি কোন পোস্টে আলোচনা করা হবে।
    • স্টোরিয়া অ্যাডমিন প্যানেলে এই সুবিধাগুলো ব্যবহারের অটোমেটেড প্রসেস আসছে অচিরেই।

 

  • পেমেন্ট কিভাবে নিবেন?
    • ক্রেতা আপনার সাইটে পণ্য কিনে পণ্যের দাম পরিশোধ করতে পারবে আপনার সাইটেই। অথবা পণ্য বুঝে পাওয়ার পরে ক্যাশ পেমেন্ট ও করতে পারেন। ক্যাশ অন ডেলিভারি সার্ভিসের জন্যে সব ধরনের সুবিধা স্টোরিয়াতেই আপনি পাবেন। কিন্তু বিক্যাশ, ক্রেডিট কার্ড কিংবা অন্য পেমেন্ট মেথড ইন্টিগ্রেট করতে আপনার স্টোরিয়ার পেইড কোন সার্ভিসের অন্তর্ভুক্ত হতে হবে আপনাকে।
  • পণ্য কিভাবে ডেলিভারি দিবেন? 
    • পণ্য সরবরাহ করার জন্যে আপনি নিজেই নিজের লোক দিয়ে এই কাজটি  করাতে পারেন। যেকোন কুরিয়ারের মাধ্যমে আপনি আপনার পণ্য ক্রেতার ঠিকানায় পাঠাতে পারেন। এছাড়াও দেশে এখন অনেক ধরনের ডেলিভারি সার্ভিস চালু হয়েছে যাদের মাধ্যমে আপনি ক্যাশ অন ডেলিভারি করতে পারেন। তারা আপনার ঠিকানা থেকে পণ্য বুঝে নিয়ে যেকোন ঠিকানায় পাঠিয়ে দিবে।
(Visited 977 times, 1 visits today)
2

Comments