অনলাইনে কোন পণ্যের ব্যবসা করবেন, কার সাথে কিভাবে পার্টনারশিপ করবেন তা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ব্যবসার পরিধি বড় করার জন্য বিভিন্ন কার্যকরী পার্টনারশিপের বিকল্প নেই।

 

 

নিচের উদাহরণটি দেখলেই অনেক কিছু পরিস্কার হয়ে যাবে। বাগডুমের ডেলিভারি ব্যাগ, অপরপাশে পাঠাও কুরিয়ার। সমঝোতার ভিত্তিতে প্রচারণা উভয়ের জন্যই লাভজনক হতে পারে। বাগডুম এবং পাঠাও কুরিয়ারের মধ্যে কি ধরণের চুক্তি হতে পারে একটু চিন্তা করি।

 

partnership

 

– ধরুন এই ব্যাগের খরচ ১০ টাকা। বাগডুম দেয় ৫ টাকা, পাঠাও দেয় ৫ টাকা
– ধরুন পাঠাও ১০ টাকাই দেয় কিন্তু শর্ত হলো বাগডুমের সব ডেলিভারি পাঠাও কুরিয়ার করবে, অন্য কোন কুরিয়ারের সাথে চুক্তি হবে না
– ধরুন বাগডুমই ১০ টাকা দেয় কিন্তু প্যাকেটে পাঠাওয়ের মার্কেটিংয়ের জন্য পাঠাও বাগডুমের সব ডেলিভারির জন্য নিয়মিত চার্জের চেয়ে ৫ টাকা কম রাখবে।

এটি শুধুমাত্র একটি ধারণা। তাদের আসলে চুক্তি কি তারাই জানে। 

 

আরো রিয়েল লাইফ ই-কমার্স হ্যাকস জানুন

 

আরেকটি উদাহরণ দেই, স্টোরিয়ারই। স্টোরিয়ার পেমেন্ট গেইটওয়ে পার্টনার এসএসএল কমার্জ। তারা একাউন্ট খুলতে যে কারো থেকে কমপক্ষে ১০ হাজার টাকা নিয়ে থাকে, কিন্তু স্টোরিয়া প্লাটফর্ম ব্যবহারকারীদের এই চার্জ লাগে না, তার উপর স্টোরিয়া প্লাটফর্মে আলাদাভাবে গেইটওয়ে এপিআই ইন্টেগ্রেশন চার্জও লাগে না। বিক্রেতার কম করে হলেও ১৫ হাজার টাকা সাশ্রয়! চুক্তির ফলে এসএসএল নিয়মিত নতুন/পুরাতন মার্চেন্টদের ট্রান্সেকশন কমিশন পাচ্ছে, আবার স্টোরিয়াও বিক্রেতাদের জন্য দেশের সেরা পেমেন্ট গেইটওয়ে এই প্লাটফর্মের সাথে ফ্রি অফার করছে।

 

যে বিষয়টি আসলে বুঝাতে চেয়েছি তা হলো ব্যবসায় পার্টনারশিপের গুরুত্ব। ব্যবসা বড় করতে চাইলে, আরো বেশি প্রসার করতে চাইলে উভয়ের জন্য লাভজনক পার্টনারশিপ খুবই দরকারী। নিজ নিজ ব্যবসার জন্য সহায়ক পার্টনারশিপ নিয়ে চিন্তা করুন এবং যোগাযোগের মাধ্যমে কার্যকর করুন।

 

পার্টনারশিপ করার কথা চিন্তা করলে ব্যক্তিগত ইগো পরিহার করুন, বিনয় এবং সৌজন্যতা দেখান।  উভয়পক্ষের ব্যবসায়িক সুফল যেন হয় সেদিকেই মূল ফোকাস রাখতে হবে। সবার জন্য শুভকামনা।

 

অনলাইন ব্যবসার টেকনলজি পার্টনার খুজঁছেন?

(Visited 89 times, 1 visits today)
1

Comments