অনলাইনে কোন পণ্যের ব্যবসা করবেন এবং কিভাবে সোর্সিং করবেন তার উপর অনেকাংশে আপনার ব্যবসার সফলতা নির্ভর করে।

 

বর্তমানে অনলাইনে কেনাবেচা হচ্ছে এমন একটি জনপ্রিয় আইটেম VR Box। দামের একটা তুলনামূলক যাচাই করতে যেয়ে একই ভি আর বক্সের দাম বিভিন্ন সাইটে ৩৫০ টাকা থেকে শুরু করে ৩২০০ টাকা পর্যন্তও পেয়েছি! দামের এত পার্থক্যের কারণে স্বভাবতই কোনটা আসল কোনটা নকল, কোনটার সাথে কোনটা ফ্রি, এই পণ্যের প্রকৃতমূল্য আসলে কত এই ধরণের বিভ্রান্তি তৈরী হয়। এইসব বিতর্ক বাদ দিয়ে ধরে নিই সবগুলোই একই পণ্য, তাহলে দামের যে তফাৎ বিভিন্ন সাইটে তার কারণ কি? কারণ অবশ্যই কোন বিক্রেতা কিভাবে কত দামে পণ্যটি সোর্স করছেন, সেই বিক্রেতার আনুসাঙ্গিক অপারেটিং খরচ এবং বিক্রেতার মুনাফা করার হার।

 

এজন্যেই প্রোডাক্ট সোর্সিং যে কোন ব্যবসারই খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যেই বিক্রেতা ৬০০ টাকায় সোর্স করছেন তিনি হয়তো ১২০০ টাকায় বিক্রি করতে চাচ্ছেন, আবার যিনি ৮০০ টাকায় সোর্স করছেন তিনি ১৬০০ টাকা চাইছেন। আবারো প্রশ্ন উঠে যায় তবে ৩৫০ টাকা আর ৩২০০ টাকায় যিনি বিক্রি করতে চাইছেন তারাই বা সোর্স কিভাবে করেছেন? আবার ৩৫০ টাকায় যিনি বিক্রি করছেন তার হয়তো ইনভেস্টমেন্ট ভাল, কিছুটা লোকসান দিয়ে হলেও তিনি ক্রেতার মন জয়ের চেষ্টা করছেন। সেক্ষেত্রে করণীয় কি?

 

সাধারণ ক্রেতা যারা পর্যাপ্ত বিশ্লেষন না করে বা প্রথম প্রথম অনলাইনে কেনাকাটা করছেন হয়তো তিনি পণ্যটি দেখে ভাল লাগলো এবং ১২০০ টাকায় এক জায়গা থেকে কিনলেন, দুইদিন পরে তিনি আরেক জায়গায় যখন দেখেন ৬০০ টাকায় এটি পাওয়া যাচ্ছে তিনি নিশ্চিতভাবেই প্রথম সাইট থেকে প্রতারিত হয়েছেন মনে করবেন এবং পুরো অনলাইন কেনাকাটার উপরেই তার বিরক্তি আসতে পারে। এক্ষেত্রে প্রথম বিক্রেতা যে বেশি লাভ করছে তাও হয়তো না, তিনি হয়তো ১০০০ টাকায় পণ্যটি সোর্স করেছিলেন! তবে তিনি যাই করেন একজন ক্রেতা কিন্তু তার সাইটের উপর আস্থা হারালেন (হয়তো অনলাইন শপিংয়েও কিছুটা আস্থা হারাতে পারেন)

 

নতুন যারা পর্যাপ্ত মার্কেট অ্যানালাইসিস না করে অনলাইনে বিক্রি করতে নামছেন বেশির ভাগ সময়েই তারা পণ্য সোর্সিংয়ে সুবিধা করতে পারছেন না, বেশি দামে কিনে বেশি দামে বিক্রি করতে চাচ্ছেন কিন্তু ধীরে ধীরে কাস্টমারের আস্থা হারাচ্ছেন। এক্ষেত্রে করণীয় হলো অনলাইন এবং অফলাইনে প্রচুর মার্কেট যাচাই করা, বিভিন্ন সোর্সের সাথে নেটওয়ার্কিং করা, পণ্য উৎপাদন বা আমদানীর পুরো চক্রটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানা, ফার্স্ট হ্যান্ড সোর্সিং খোঁজা। ফেসবুকে বিভিন্ন পেইজে অমুক জিনিস পাইকারি কে দিতে পারবেন এই ধরণের প্রশ্ন থেকে যেসকল উত্তর পান সেগুলো পূর্ণাঙ্গ যাচাইবাছাই করে, সরাসরি যোগাযোগ করে, টার্মস এবং কন্ডিশন জেনে তবেই ডিলে যাবেন।

 

আবার ক্রেতা সাধারণের জন্য বলতে চাই আপনারা সচেতন হোন, অনলাইনে কিছু কেনার আগে কয়েকটি সাইটে যাচাই বাছাই করে নিন, পণ্যের বিস্তারিত জেনে, প্রোডাক্ট রিভিউ দেখে, রিটার্ন/রিফান্ড পলিসি দেখে কেনাকাটা করুন। সবার জন্য শুভকামনা।

 

নিজের একটি অনলাইন ব্যবসা হোক আজই

(Visited 82 times, 1 visits today)
0

Comments