হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টের উপর উচ্চতর ডিগ্রীধারী জনাব মাহবুব আলম বর্তমানে অপারেশন ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত আছেন ঢাকার একটি পাঁচতারকা হোটেলে। চাকরীর পাশাপাশি নারীর ফ্যাশানেবল অন্তর্বাস নিয়ে কাজ করছেন তিনি। দীর্ঘদিন দেশের বাইরে থাকার অভিজ্ঞতা থেকে এদেশে নারীদের জন্য কোয়ালিটি সম্পন্ন অন্তর্বাস এবং ফ্যাশানেবল পোশাক সহজলভ্য করতে প্রতিষ্ঠা করেছেন অনলাইন স্টোর Lovebite. স্টোরিয়া প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ব্যবসা পরিচালনা করছেন প্রায় আড়াই বছর।  স্টোরিয়ার পক্ষ  থেকে আমরা শুনতে গিয়েছি তার অনলাইন ব্যবসার পুরো গল্প। সেইগল্পই আজ শোনাতে চাই স্টোরিয়ার সকল পাঠককে।

 

lovebite8

অন্তর্বাস নিয়ে কাজ করার চিন্তা কেন? কিভাবে শুরু করেছিলেন?

চিন্তার শুরু সেই ২০১১ সালে; তখন কাতারে ছিলাম। সেবছর দেশে বেড়াতে এসে উপলব্ধি করি তৈরি পোশাকের নানা ব্র্যান্ডের প্রচুর শোরুম থাকলেও নারীর অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি পোশাক উপকরণ অন্তর্বাসের তেমন কোন উল্লেখযোগ্য শপ নেই। কিছু দোকান যা ছিল সেগুলোতে পণ্যের মান এবং মাপের সঠিক কোন ধারণা ছিল না, কাস্টমাররা যে ধরণের বা মানের প্রোডাক্ট চান তা দুঃষ্প্রাপ্য ছিল। তখন থেকেই চিন্তা করি এই প্রোডাক্ট নিশ নিয়ে ভিন্ন কিছু করার যেখানে কাস্টমার স্বাচ্ছ্যন্দে বিভিন্ন রুচির ভাল মানের অন্তর্বাস সাশ্রয়ী মূল্যে কিনতে পারবেন। ইউরোপীয়ান ভেন্ডরদের সাথে যোগাযোগ করে ছোট পরিসরে প্রি-অর্ডার বেইজড কাজ শুরু করি। বর্তমানে আমরা অন্তর্বাসের পাশাপাশি নারীদের ফ্যাশনেবল পোশাক, পার্টি ড্রেস এবং এক্সক্লুসিভ জুয়েলারি নিয়েও কাজ করছি।

 

দেশে অন্তর্বাস নিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন?

সত্যি বলতে আমার অভিজ্ঞতা কিন্তু বেশ ভাল। আমাদের দেশে পাবলিকলি নারীর অন্তর্বাস ব্যাপারটিই হয়তো কিছুটা সংবেদনশীল। তবে আমরা সবাই জানি প্রকৃতপক্ষে এটি নারীর অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি পোশাক, নিত্যদিনের পোশাক। অন্তর্বাস একটি আকর্ষণীয় গিফট আইটেমও বটে। আর অনলাইন স্টোর হওয়াতে নারীরা সাচ্ছ্যন্দে বিশাল রকমারী কালেকশন থেকে নিজের পছন্দসই অন্তর্বাস দেখতে পারছেন, প্রোপার সাইজিং চার্ট অনুযায়ী পণ্য কিনতে পারছেন। প্রচুর পুরুষও তাদের সঙ্গিনীর জন্য অনলাইনে অন্তর্বাস কিনছেন। ব্যাপারটি খুব গোপনীয় পর্যায়ে এখন আর নেই। নারী পুরুষ নির্বিশেষে আমার নতুন এবং নিয়মিত ক্রেতা আছেন যারা নিজেরাও অন্তর্বাস কেনা বা উপহার দেয়ার ব্যাপারটি খুব সহজ স্বাভাবিকভাবেই নেন।

 

lovebite2

 

কিভাবে অনলাইনে বিক্রি বাড়াচ্ছেন? কি ধরণের মার্কেটিং কলাকৌশল প্রয়োগ করছেন?

মূলত গুগল অ্যাডওয়ার্ডস ব্যবহার করি। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পণ্য শেয়ার করি। তবে ফেসবুককেন্দ্রিক পেইড মার্কেটিং তেমন করা হয় না। নিয়মিত ইমেইল এবং এসএমএস মার্কেটিং করি। কাস্টমার রিটেনশনের জন্য এই দুটি বেশ ভাল কাজ করে।  এর বাইরে অকেশনাল এবং স্পেশাল ডে অফ দ্যা উইক ডিস্কাউন্ট কুপন ব্যবহার করি।

 

lovebite1

 

অর্ডার ফুলফিলমেন্ট কিভাবে করছেন?

আমরা বেশিরভাগ পণ্যই প্রি-অর্ডার সিস্টেমে করে থাকি। পণ্য অর্ডার করার পরে ৭-১৪ দিন সময় লাগে ডেলিভারির জন্য। স্পেশাল প্যাকেজিং করে থাকি, ই-কুরিয়ারের মাধ্যমে ডেলিভারি দিই। আমাদের সুনির্দিষ্ট রিটার্ণ পলিসি আছে, সেই অনুযায়ীই কাস্টমার সার্ভিস প্রদান করি। পুরো দেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি, বিকাশ বা যে কোন কার্ডের মাধ্যমে পেমেন্টে করার ব্যবস্থা আছে। ঢাকার বাইরের অর্ডারের ক্ষেত্রে কিছু অ্যাডভান্স নিয়ে থাকি।

 

lovebite7

 

স্টোরিয়া প্লাটফর্ম নিয়ে অভিজ্ঞতা…

Lovebite সম্ভবত স্টোরিয়ার সবচেয়ে পুরাতন ক্লায়েন্ট। স্টোরিয়া প্লাটফর্মের একদম প্রাথমিক রিলিজের সময় থেকেই এটি ব্যবহার করে আসছি। তাদের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত পুরা প্লাটফর্মেরই পরিবর্তন এবং অগ্রগতি আমি ফলো করছি, অনেক ফিচারের ডিজাইন এবং ইমপ্লিমেন্টেশন নিয়ে আমার সাথে তাদের পারসোনালি যোগাযোগও হয়েছে। এখনো কিছু অ্যাডভান্সড ফিচার বাকি আছে, মার্কেটিং অ্যাপ নিয়েও আরো কাজ করার আছে। তবে তারা আন্তরিকতার সাথে চেষ্টা করছে প্লাটফর্মটিকে ধীরেধীরে ওয়ার্ল্ডক্লাস লেভেলে নিয়ে যাওয়ার জন্য। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ই-কমার্স সেক্টরে নিঃসন্দেহে স্টোরিয়া একটি যুগান্তকারী প্রোডাক্ট। দেশের বাইরে এই ধরণের বেশ কিছু প্লাটফর্ম আছে, তবে বাংলাদেশে একটাই। আর এই ধরণের সার্ভিসের উপযোগিতা ব্যবহার না করলে আসলে বোঝা যায় না। আমিতো সবাইকে বলি স্টোরিয়া হলো বাংলাদেশের শপিফাই।

 

lovebite6

স্টোরিয়ার কোন বৈশিষ্ট্য বা ফিচার আপনার বেশি ভাল লাগে এবং কেন?

ই-কমার্স ওয়েবসাইট বানানো এবং দৈনন্দিন পরিচালনার প্রক্রিয়াটি এতই সহজ যে আমার মত নন টেকনিকাল মানুষজনও আরামে ব্যবহার করতে পারবেন। আর তাদের প্লাটফর্মে মোটামুটি প্রয়োজনীয় সব সার্ভিসেরই ইন্টেগ্রেশন আছে যা অন্য প্ল্যাটফর্মে ম্যানেজ করা ঝামেলা এবং ব্যয়বহুল হতো। যেমন, কোন চিন্তাভাবনা ছাড়াই পেমেন্ট গেইটওয়ের কানেকশন পেয়েছি, অনলাইনে পেমেন্ট পাচ্ছি। এছাড়া পুরো সিস্টেমের রুপরেখা যথেষ্ট আধুনিক এবং সুদূরপ্রসারী মনে হয় আমার কাছে।

 

যারা নতুন ই-কমার্স ওয়েবসাইট বানাতে চাচ্ছে বা অনলাইন বিজনেস সলিউশন খুঁজছে তাদের জন্য স্টোরিয়া কি একটি আদর্শ প্লাটফর্ম হতে পারে?

কেন নয়? স্টোরিয়া প্ল্যাটফর্ম নতুন এবং অভিজ্ঞ সবার জন্যই উপযোগী আমার ধারণা। এখানে অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম, হোস্টিং, সার্ভার ইত্যাদি নিয়ে কোন চিন্তা করতে হয় না। অপারেট করা খুবই সহজ, প্রোডাক্ট ম্যানেজমেন্ট, কাস্টমার ম্যানেজমেন্ট সবই ভাল ভাবে করতে পারছি। আর সাবস্ক্রিপশন সিস্টেমে বড় বিনিয়োগ লাগছে না, সার্ভিস ঠিকমত পাচ্ছি, এইতো। যদি ঝামেলামুক্ত ভাল সার্ভিস চান স্টোরিয়া প্ল্যাটফর্ম ট্রাই করে দেখতে পারেন।

 

এরকম আরো Powered by Storrea ওয়েবসাইট দেখতে এবং সেই উদ্যোক্তার গল্প শুনতে ভিজিট করুন Customer Stories

(Visited 268 times, 1 visits today)
0

Comments