আপনি যদি একজন ব্যবসায়ী হোন আর আপনার একটি দোকান থাকে তবে সেখানে নানান ধরনের ক্রেতা আসেন। তারা আপনার পণ্য হাতে নিয়ে যাচাই বাছাই করে দেখেন। নেড়েচেড়ে দেখে তবেই তারা সিদ্ধান্ত নেন আপনার পণ্য কিনবেন কি কিনবেন না? আপনার সুযোগ থাকে ক্রেতার সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপনের মধ্য দিয়ে ক্রেতাকে আপনার পণ্যের ব্যাপারে আকৃষ্ট করে তোলার। কিন্তু অনলাইন জগৎ এক ভিন্ন জগৎ। এখানে কাস্টমার আসবেন আপনার পেইজে ভিজিট করতে। তার সাথে আপনার হয়তো কোনদিন সাক্ষাৎ এ দেখা নাও হতে পারে। কিন্তু আপনার পণ্যই আসলে আপনার হয়ে অনলাইন স্টোরে কথা বলবে। তাই আপনার পণ্যের আকর্ষণীয় উপস্থাপনের ব্যাপারটা জরুরী। আর এক্ষেত্রে পণ্যের আকর্ষণীয় ছবি হতে পারে সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যম।

তবে আসুন জেনে নেওয়া যাক,  প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফির খুঁটিনাটি কিছু সহজ ব্যাপার যেগুলো হয়তো আপনার হাতের কাছের প্রযুক্তি দিয়েই করা সম্ভব।

 

ব্যাকগ্রাউন্ড কী হলে ভালো হয়?

একটি সাদামাটা এবং পরিষ্কার ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করুন। আপনি ভিন্ন ভিন্ন রং এর ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করে দেখতে পারেন তবে সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডই সবচেয়ে ভালো হবে বলে আমাদের ধারণা। পিছনে কোন সাদা কাগজ কিংবা কাপড় রেখে তার উপরে আপনি আপনার পণ্যের ছবি তুলতে পারেন।

 

ফোকাস ঠিক করুন

আপনার প্রোডাক্টকে ফোকাস করুন। যদি ক্যামেরা ম্যানুয়াল ফোকাসে থাকে তবে সেটা পরিবর্তন করে অটো ফোকাসে নিন। আপনার পণ্য আউট অফ ফোকাস হয়ে গেলে সেটা খুবই বাজে দেখাবে আপনার সাইটে। আপনি চাইলে খুব কাছ থেকে ম্যাক্রো মোডেও ছবি তুলতে পারেন। তবে আপনি যদি ক্যামেরা এক্সপার্ট না হোন তবে সেটা না করাটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

 

কভার করা চাই প্রোডাক্টের সব এঙ্গেল

সব ধরনের এঙ্গেল থেকেই প্রোডাক্টের ছবি তোলার চেষ্টা করুন। এতে করে পরবর্তীতে আপনার জন্য বাছাই করতে সুবিধা হবে। আর কাস্টমারকে সব এঙ্গেলে থেকে ছবি দেখার সুযোগ করে দেওয়াটা অনলাইন বিক্রেতা হিসেবে আপনার দায়িত্ব এটাও মাথায় রাখবেন। ওয়েবসাইটে দেওয়ার জন্যে যেইসব এঙ্গেল থেকে আপনার পণ্য দেখতে আকর্ষণীয় মনে হয় সেই ছবিগুলো নির্বাচন করুন।

 

ফ্ল্যাশ? ব্যবহার করব কি করব না?

ফ্ল্যাশ যথাসম্ভব পরিহার করা উচিত প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফির ক্ষেত্রে। ফ্ল্যাশ আপনার প্রোডাক্টের স্বাভাবিক রং পরিবর্তন করে দেয়। দিনের আলোয় ছবি তোলাই সবচেয়ে সহজ সমাধান।

 

লাইট কেমন হলে ভালো হয়

দিনের আলোয় যদি ঘরে ছবি তুলতে চান তবে ফ্ল্যাশ অফ করে দিন আপনার ক্যামেরার। আর যদি আপনার মডেল সহ আপনার পণ্যের ছবি তুলতে চান তবে বাইরে যখন দিনের আলো থাকবে তখনই ছবি তুলুন। তবে একেবারে কাঠফাটা রোদের মধ্যে ছবি তোলাও বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। সকালের নরম আলো কিংবা পড়ন্ত বিকেলের রোদই সবচেয়ে ভালো লাইটিং আউটডোর ফটোগ্রাফির জন্যে।

 

ট্রাইপড এর ব্যবহার শিখুন

ছবি তোলার সময় হাত যাতে কেঁপে না যায় তাই ট্রাইপড ব্যবহার করুন। ট্রাইপড আপনি সস্তায় দেশের যেকোন কম্পিউটার মার্কেট থেকেই কিনে নিতে পারেন। আপনার যে ডিএসএলআর ক্যামেরা থাকতে হবে তা কিন্তু নয়। পয়েন্ট এন্ড শুট ক্যামেরা এবং ট্রাইপড দিয়ে আপনার প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফির কাজ চলে যাবে।

 

হাতের কাছে সুলভ সফটওয়্যার

আপনার প্রোডাক্টের ছবি কোলাজ করতে, ক্রপ করতে, কালার ব্যালেন্স করতে, ইমেজ রিসাইজ করতে আপনি পিকাসা ব্যবহার করতে পারেন।  অথবা অনলাইনে Pixlr এডিটর দিয়েও আপনার ইমেজ এডিট করতে পারেন বিনামূল্যে।

 

এই ছোটখাট ব্যাপারগুলো মাথায় রেখে আপনি নিজেই পারেন আপনার প্রোডাক্টের আকর্ষণীয় ছবি তুলতে। আজ আপাতত এটুকুই। পরবর্তী কোন পোস্টে আরও বিস্তারিত আলোচনার ইচ্ছা রইল।

 

(Visited 465 times, 1 visits today)
1

Comments